৩১ লাখ টাকার ব্রিজের পাশে বাঁশের সাঁকোয় পারাপার

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজে'লার কাকিনা ইউনিয়নের রুদ্রেশ্বর গ্রামে প্রায় ছয় মাস আগে আকস্মিক ব'ন্যায় ধসে যায় ব্রিজের দুই পাশের সংযোগ সড়ক। তাই এলাকাবাসীর উদ্যোগে খাল পারাপারের জন্য ব্রিজের পাশেই নির্মাণ করা একটি বাঁশের সাঁকো।

সংযোগ সড়ক মেরামতের কোনো উদ্যোগ না থাকায় ঝুঁ'কি নিয়েই বাঁশের সাঁকোয় চলাচল করছেন দুই গ্রামের ১৫ হাজার মানুষ। এতে দুর্ভোগের পাশাপাশি বাড়ছে দুর্ঘ'টনার আশ'ঙ্কা।সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, দু'র্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে

২০১৬-১৭ অর্থবছরে ৩০ লাখ ৯০ হাজার টাকা ব্যয়ে ব্রিজটি নির্মাণ করা হয়। এর কাজ পায় লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজে'লার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ‘ঐশি ট্রেডার্স’। ২০১৭ সালের ৭ এপ্রিল ব্রিজের উদ্বোধন করা হয়।গত বছরের ২০ অক্টোবর সন্ধ্যার দিকে আকস্মিক ব'ন্যায় তিস্তার পানি বেড়ে প্রবল স্রোতে ব্রিজটির দুই পাশে সংযোগ সড়কের মাটি ধসে যায় এবং ব্রিজের বেশ কিছু অংশে ফাটল ধরে। একই সঙ্গে রুদ্রেশ্বর মিলনবাজার এলাকায় কাকিনা-রংপুর সড়কের একটি অংশ ভেঙে পড়ে। এতে ওই সড়ক

দিয়ে তিনদিন যোগাযোগ সম্পূর্ণ বন্ধ থাকে। পরে সড়কটির পাশের কাঁচা অংশ যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হলেও মিলন বাজারের পশ্চিমে অবস্থিত ব্রিজটি চলাচলের উপযোগী হয়ে ওঠেনি এখনো। সেই থেকে রাস্তা ছাড়াই দাঁড়িয়ে আছে ব্রিজটি।রুদ্রেশ্বর গ্রামের সালজার হোসেন বলেন, ব্রিজটি ভাঙার পর থেকে মানুষজনের যাতায়াতে সমস্যা দেখা দেয়। ফলে এলাকাবাসীর উদ্যোগে পাশেই একটি বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করা হয়। কিন্তু সেটিও ঝুঁ'কিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। কিছুদিন আগে দুই মোটরসাইকেল আরোহী ওই সাঁকো দিয়ে পার হতে গিয়ে ভেঙে পানিতে পড়ে যান।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ব্রিজটির পশ্চিমে রুদ্রেশ্বর গ্রাম ছাড়াও রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজে'লা লক্ষ্মীটারী ইউনিয়নের বাগেরহাট গ্রামে অন্তত ১৫ হাজার মানুষের বসবাস। এই দুই গ্রামের মানুষ ব্রিজ দিয়ে পার হয়ে কাকিনা বাজার ও রংপুরে যাওয়া-আসা করেন। এছাড়া পূর্ব দিকে রুদ্রেশ্বর গ্রামের একটি অংশের লোকজন ওই পাড়ের জমিতে বিভিন্ন ফসল আবাদ করেন। ব্রিজটি ভেঙে যাওয়ায় ফসল আনা-নেওয়াসহ দুর্ভোগে পড়েছেন দুই গ্রামের মানুষ।স্থানীয় কৃষক আব্দুল গনি বলেন, ভা'রী যানবাহন নিয়ে চলাচল করা

যায় না। ওপারে আবাদি ফসল আনতে গিয়ে সমস্যায় পড়তে হয়। তাই অ'তিরিক্ত ব্যয় বহন করতে হচ্ছে। ব্রিজটি মেরামতের জন্য নির্বাচনের আগে অনেকেই এসে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু এখন আর কেউ খবর রাখেন না।কালীগঞ্জ উপজে'লা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মক'র্তা ফেরদৌস আহমেদ জাগো নিউজকে বলেন, ব'ন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্রিজটি মেরামতের জন্য অধিদফতরের প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। আশা করি দ্রুত কাজ শুরু হবে।

Back to top button

You cannot copy content of this page