স্বামী-সন্তানদের পর এবার না ফেরার দেশে স্ত্রী' রেখাও

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে আবাসিক ভবনে লাগা আ'গুনে দ'গ্ধ হয়ে স্বামী ও দুই ছে'লেকে হারানোর পর রেখা বেগমও (৩২) মা'রা গেছেন।

গতকাল সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) রাত সোয়া ১১টায় শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা'রা যান তিনি। রেখা আশুগঞ্জ উপজে'লার শরীফপুর ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের মকবুল হোসেনের স্ত্রী'।

এর আগে অ'গ্নিদ'গ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলে রেখার ছোট ছে'লে জোবায়ের হোসেন (৭) মা'রা যায়। অ'গ্নিদ'গ্ধ বড় ছে'লে আরিফ হোসেন (১১) ও স্বামী মকবুল মিয়া (৪২) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মা'রা যান। আর রেখার গর্ভে থাকা মে'য়েসন্তানের জন্ম হয় মৃ'ত অবস্থায়। অ'গ্নিকা'ণ্ডে পাঁচজনের গোটা পরিবার শেষ হয়ে গেল।

রেখাসহ মকবুলের পরিবারের ৫ সদস্যের মৃ'ত্যু ঘটনা নিয়ে এলাকায় চলছে শোকের মাতম।মকবুলের চাচা শরীফ হোসেন গণমাধ্যমকে জানান, গতকাল রবিবার থেকে রেখার শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। সোমবার অবস্থা আরও খা'রাপ হওয়ায় তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন চিকিৎসকরা। এর মধ্যেই রাতে তার মৃ'ত্যু হয়।

এর আগে গত ২২ ফেব্রুয়ারি রাত সোয়া ১০টায় আশুগঞ্জ উপজে'লার সদর ইউনিয়নের শরীয়তনগর এলাকার আলাই মিয়ার পাঁচতলা বিশিষ্ট ভবনের নিচতলায় আ'গুন লাগে। নিচতলার একটি বাসায় স্ত্রী' ও দুই ছে'লে সন্তান নিয়ে ভাড়া থাকতেন মকবুল হোসেন। প্রায় এক ঘণ্টার চেষ্টা চালিয়ে আশুগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের কর্মীরা আ'গুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

Back to top button

You cannot copy content of this page