সুখী জীবনের জন্য ২৫ টি টিপস জানুন সুখে থাকুন

সুখী জীবনের জন্য ২৫ টি টিপসঃ১. প্রতিদিন অন্তত ৩০ মিনিট হাঁটুন৷২. নির্জন কোন স্থানে একাকী' অন্তত ১০ মিনিট কা'টান ও নিজেকে নিয়ে ভাবুন৷

৩. ঘুম থেকে উঠেই প্রকৃতির নির্মল পরিবেশে থাকার চেষ্টা করুন। সারা দিনের করণীয় গুলো স'ম্পর্কে মনস্থির করুন।
৪. নির্ভরযোগ্য প্রাকৃতিক উপাদানে ঘরে তৈরি খাবার বেশি খাবেন আর প্রক্রিয়াজাত খাবার কম খাবেন।৫. সবুজ চা এবং পর্যাপ্ত পানি পান করুন।

৬. প্রতিদিন অন্তত ৩ জনের মুখে হাসি ফোটানোর চেষ্টা করুন।৭. গালগপ্প, অ'তীতের স্মৃ'তি, বাজে চিন্তা করে আপনার মূল্যবান সময় এবং শক্তি অ'পচয় করবেন না। ভাল কাজে সময় ও শক্তি ব্যয় করুন।৮. সকালের নাস্তা রাজার মত, দুপুরের খাবার প্রজার মত এবং রাতের খাবার খাবেন ভিক্ষুকের মত৯. জীবন সব সময় সমান যায় না, তবুও ভাল কিছুর অ'পেক্ষা করতে শিখু'ন।

১০. অন্যকে ঘৃনা করে সময় নষ্ট করার জন্য জীবন খুব ছোট, সকলকে ক্ষমা করে দিন সব কিছুর জন্য।১১. কঠিন করে কোন বিষয় ভাববেন না। সকল বিষয়ের সহ'জ সমাধান চিন্তা করুন।১২. সব তর্কে জিততে হবে এমন নয়, তবে মতামত হিসাবে মেনে নিতে পারেন আবার নাও মেনে নিতে পারেন।

১৩. আপনার অ'তীতকে শান্তভাবে চিন্তা করুন, ভূলগুলো শুধরে নিন। অ'তীতের জন্য বর্তমানকে নষ্ট করবেন না।১৪. অন্যের জীবনের সাথে নিজের জীবন তুলনা করবেন না।১৫. কেউ আপনার সুখের দায়িত্ব নিয়ে বসে নেই।
আপনার কাজই আপনাকে সুখ এনে দেবে।১৬. প্রতি ৫ বছরমেয়াদী পরিকল্পনা করুন এবং ওই সময়ের মধ্যেই তা বাস্তবায়ন করুন।১৭. গরীবকে সাহায্য করুন। দাতা হোন, গ্রহীতা নয়।

১৮. অন্য লোকে আপনাকে কি ভাবছে তা নিয়ে মা'থা ঘামানোর দরকার নেই বরং অাপনি অাপনাকে কি ভাবছেন সেটা মুল্যায়ন করুন ও সঠিক কাজটি করুন।১৯. ক'ষ্ট পুষে রাখবেন না। কারণ সময়ের স্রোতে সব ক'ষ্ট ভেসে যায় তাই ক'ষ্টের ব্যাপারে খোলামেলা অালাপ করুন ও ঘনিষ্টদের সাথে শেয়ার করুন।

২০. মনে রাখবেন সময় যতই ভাল বা খা'রাপহোক তা বদলাবেই।২১. অ'সুস্থ হলে আপনার ব্যবসা বা চাকুরী অন্য কেউ দেখভাল করবে না। করবে বন্ধু কিংবা নিকটাত্মীয়রা, তাদের সাথে স'ম্পর্ক বজায় রাখু'ন।২২. ফেইসবুক অনেক সময় নষ্ট করে। পোষ্টটি পড়তে পড়তেই অনেক খানি সময় নষ্ট করেছেন। ফেইসবুকে আপনার সময় নির্দিষ্ট করুন।কতক্ষণ সময় থাকবেন এখানে।

২৩. প্রতি রাত ঘুমানোর আগে আপনার জীবনের জন্য বাবা মাকে মনে মনে ধন্যবাদ দিন।২৪. মনে রাখু'ন জীবনের কোন কোন ভুলের জন্য আপনি ক্ষমা পেয়েছেন। সেসব ভুল আর যেন না হয় তার জন্য সতর্ক থাকুন।২৫. আপনার বন্ধুদেরও তথ্যগুলো জানান, যেন তারাও আপনার ভাল দিকগুলো স'ম্পর্কে জানেন এবং আপনাকে আপনার মত করে চলতে দেয়৷

পোস্টটি আপনাদের উপকারে এলে লাইক ও শেয়ার করুন৷ পোষ্টটা কেমন লেগেছে সংক্ষেপে কমেন্টেস করে জানাবেন৷ T= (Thanks) V= (Very good) E= (Excellent) আপনাদের কমেন্ট দেখলে আম'রা ভালো পোষ্ট দিতে উৎসাহ পাই। নিয়মিত স্বাস্থ্যতথ্য পেতে আমাদের পেইজে লাইক দিন৷ অন্যদের জানাতে পোস্টটি শেয়ার করুন৷

Back to top button

You cannot copy content of this page