আবারও বয়সে ছাড় পাচ্ছেন সরকারি চাকরিপ্রার্থীরা

মহামা'রি করো'নাভাই'রাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে লকডাউনের (বিধিনিষেধ) কারণে ক্ষতিগ্রস্ত সরকারি চাকরি প্রার্থীদের গতবছরের মতো এ বছরও বয়সে ছাড় পেতে যাচ্ছেন।

চাকরিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে কারও নির্ধারিত বয়স পেরিয়ে গেলে ক্ষতিগ্রস্তদের বয়স শিথিলের জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় শিগগিরই বিভাগগুলোকে নির্দেশনা দেবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

করো'নাভাই'রাসের সংক্রমণের কারণে গত ৫ এপ্রিল থেকে বিধিনিষেধ ঘোষণা করে সরকার। এরপর বিধিনিষেধ বাড়ানো হয় আগামী ১৬ মে পর্যন্ত। সংক্রমণ পরিস্থিতিতে চাকরির পরীক্ষা নেয়া অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, করো'নায় বিধিনিষেধের কারণে চাকরিপ্রার্থীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। তাদের ক্ষতি পুষিয়ে দিতে চেষ্টা করবো। বয়সটা যাতে ছাড় দেয়া হয় সেই পদক্ষেপ আম'রা নেব।

তিনি আরো বলেন, যে সময়টা তাদের নষ্ট হয়েছে, যখন যে সময় বি'জ্ঞপ্তি হওয়ার কথা ছিল, আগের সময় ধরেই পরবর্তীকালে বি'জ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। আম'রা মন্ত্রণালয় ও বিভাগগুলোকে বয়সে ছাড় দিয়ে সেই সময়টা পুষিয়ে দেয়ার নির্দেশনা দেব। পরিস্থিতি স্বাভবিক হলে আম'রা এ বিষয়ে নির্দেশনা দেব।গত বছর করো'না মাহামা'রিতে সাধারণ ছুটির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত চাকরি প্রার্থীদের বয়সের ক্ষেত্রে ছাড় দিয়েছিলো সরকার। ওই বছর ২৫ মা'র্চ যাদের বয়স ৩০ বছর পূর্ণ হয়েছিল তাদের পরবর্তী ৫ মাস পর্যন্ত সরকারি চাকরিতে আবেদনের সুযোগ দেয়া হয়।

করো'না দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবিলায় গত ৫ থেকে ১১ এপ্রিল পর্যন্ত বিধিনিষেধ দেয়া হলেও তা খুব একটা কার্যকর হয়নি। পরে ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত শুরু হয় এক সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধ। দ্বিতীয় তৃতীয় ধাপে এটি বাড়িয়ে ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত করা হয়। এরপর ৫ মে মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়িয়ে ২৭ এপ্রিল দুপুরে প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এ বিধিনিষেধের মেয়াদ ১৬ মে পর্যন্ত বাড়ানো হচ্ছে বলে সোমবার জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইস'লাম।

Back to top button

You cannot copy content of this page