রান করাই ভুলে গিয়েছিলেন! সাঙ্গাকারার এক কথাতেই সেঞ্চু'রি হাকালেন বাটলার

সময়টা ভালো যাচ্ছিলো না। সাঙ্গাকারার পরাম'র্শেই বদলে গেলেন জস বাটলার। আইপিএল-এ নিজের প্রথম শতরানের সাক্ষাৎ পেয়েছেন উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান জস বাটলার। গতকাল (রবিবার) সানরাইজার্স বিধ্বংসী মেজাজে হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে ৫৬ বলে শতক করেন তিনি।

শেষ পর্যন্ত আউট হন ৬৪ বলে ১২৪ রানের ম্যাচ জয়ী ইনিংস খেলে। ঝড়ো ইনিংসের পথে মে'রেছেন ১১টি চার এবং ৮টি বিশাল ছক্কা। আইপিএলে ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের মধ্যে এর আগে শতক ছিল জনি বেয়ারস্টো, কেভিন পিটারসেন, বেন স্টোকসের। এবার চতুর্থ ইংলিশ ব্যাটসম্যান হিসেবে শতকের দেখা বাটলারের ব্যাটে। ম্যাচর পর তিনি জানান, তাঁর এই অসামান্য পারফরম্যান্সের পিছনে রাজস্থানের ডিরেক্টর এফ ক্রিকেট কুমা'র সাঙ্গাকারার বড় একটি অবদান রয়েছে।

কী' অবদান রয়েছে সাঙ্গাকারার? এই প্রশ্ন উত্তর দিতে গিয়ে বাটলার বলেন, “কুমা'র সাঙ্গাকারা আমাকে খুব সুন্দর একটি মেসেজ দিয়েছিল। তিনি আমাকে বলেছিলেন, আমি যেন নিজের শেপ বা স্টাইলটা ধরে রাখি। নিজের খেলাটার প্রতি বিশ্বা'স রাখি। আমি সেই চেষ্টাটাই করে গিয়েছি।” আর তাতেই আত্মবিশ্বা'স ফিরে পেয়েছেন। নিজের সহ'জাত ব্যাটিং করেই দেখা পেয়েছেন শতকের। আগের ম্যাচগুলোতে ব্যাট হাতে জাত চেনাতে পারছিলেন না জস।

আগের ৯ ইনিংসে চল্লিশোর্ধ্ব ইনিংস ছিল মাত্র ২টি। ছিল না কোনও অর্ধশতক। এক অংকের ঘরেই আউট হয়েছেন ৪ বার। টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচে তো ডাক মে'রেছিলেন। একটা সময় বাটলারের মনে হয়েছিল ব্যাট ধ'রাটাই তিনি ভুলে গেছেন। বাটলার বলেন, “কিছুদিনের জন্য আমা'র মনে হতে শুরু হয়েছিল, কী' ভাবে ব্যাট ধরতে হয় সেটাই বোধহয় আমি জানি না। আমি ক্রিজে থেকে রান করতে পেরেছি, আমা'র সত্যি ভাল লাগছে।কিছু শট আমি ব্যাটের মাঝখান দিয়ে খেলেছি, এটা ভাল বিষয়। এই জয়টা আমাদের দলের জন্যও খুব দরকার ছিল। দলকে সাহায্য করতে পেরে আমি খুশি।”

Back to top button

You cannot copy content of this page