যখন অন্যকে হেয় করেন, উন্মোচিত হয় আপনার আসল পরিচয়ঃ আঁখি আলমগীর

আঁখি আলমগীর হলেন একজন বাংলাদেশী গায়িকা, অ'ভিনেত্রী ও উপস্থাপিকা। তিনি ১৯৮৪ সালে ভাত দে চলচ্চিত্রে অ'ভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ শি'শু শিল্পী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন।

সোশ্যাল মিডিয়াতে নানাভাবে মানুষের ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে হেয় করা নিয়ে নিজের অবস্থান জানালেন জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী আঁখি আলমগীর।ফেসবুক স্ট্যাটাসে আঁখি আলমগীর লিখেছেন,ফেসবুক আসলেই ফেসবুক। যতই কাব্য দেখান, গান দেখান, রং দেখান, হামবড়া ভাব দেখান, আপনার আসল পরিচয়, আসল “face” তখনই উন্মোচিত হয় যখন আপনি অন্যকে হেয় করেন।

কিছু মানুষ অহরহ অন্যকে খোঁচা মে'রে, অ'পমান করে স্ট্যাটাস দিয়ে নিজের আসল স্ট্যাটাস দেখিয়ে দিচ্ছেন, সেটা বোঝার ক্ষমতাও হিং'সা আর নীচতায় ভরা চোখ, মন দেখতে পায় না।আমি অনেক কাছের মানুষকে unfriend/unfollow করেছি, আমাকে নয়, শুধু তাদের অন্যকে নিচু করে বা হেয় করে আনন্দ পাবার অভ্যাসের কারণে।

কাউকে ভালো না লাগলে তাকে avoid করেন, বা তাকে confront করবেন, কোনটার সাহস না থাকলে ইনিয়ে বিনিয়ে আকারে ইঙ্গিতে স্ট্যাটাস দিবেন না। এমনও হতে পারে যার জন্য লিখলেন সে বুঝেও নাই, তার হয়তো এতো সময় ও নাই।খামোখাই আপনার ক্ষুদ্রতা মানুষ দেখলো। কথাগুলো আমা'র ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। তাই আমিও আগে ভাবি, তারপর লিখি।

ps: কে কাকে বিয়ে করলো, কোথায় ভেগে গেল, কে কার কত তম বউ/স্বামী, কার সাথে কার পর'কী'য়া এসব বিষয় নিয়ে ভেবে মা'থা নষ্ট করবেন না। নিজের চরকায় তেল না থাকলে পরে কেউ বেল দিবে না।

Back to top button

You cannot copy content of this page