প্রিয়জনকে নিয়ে সময় কা'টানোর সেরা ৫ জায়গা

‘একদিনের ছুটিতে কোথায় যাওয়া যায়?’—অনেকে প্রায়ই এমন প্রশ্ন করেন। যদি প্রিয়জনকে নিয়ে কোথাও একদিনের জন্য যেতে চান, তাহলে খুব বেশি দূরের গন্তব্য নির্বাচন করতে হবে না। ঢাকার কাছেই কিন্তু দর্শনীয় বেশ কিছু জায়গা রয়েছে, যেখানে নিরিবিলি ঘুরে আসা যাবে।

ঢাকার কাছেই এমন কিছু সুন্দর জায়গার খোঁজ দেয়া হলো-

মৈনট ঘাট

অনেকেই মৈনট ঘাট'কে বলেন ‘মিনি কক্সবাজার’। ঢাকা থেকে একটু দূরে পদ্মা'র পাড়েই জায়গাটির অবস্থান। মৈনট ঘাটে পৌঁছেই দেখতে পাবেন সামনে বিশাল নদী আর পায়ের নীচে ধুলোর সমুদ্র। আরেকটু সামনে গেলেই পাথর। কাছে নৌকা আর স্পীডবোটও আছে, পদ্মা'র বুকে ভেসে বেড়াতে পারবেন ইচ্ছে মতো।

গো'লাপ গ্রাম

গো'লাপে গো'লাপে পরিপূর্ণ ছোট্ট একটা গ্রাম। মনে হবে যেন শুধু ফুলের সমুদ্র। যেখানে তাকাবেন সেখানেই শুধু ফুল আর ফুল। ক্ষেতে, মাঠে, ঘাটে, বাড়ির উঠানে – এমন কোন জায়গা নেই যে গো'লাপের ছোঁয়া নেই। গ্রামের সরু পথ দিয়ে হাঁটতে হাঁটতে দেখবেন পথের দুপাশে শুধু গো'লাপের সারি। এমন দৃশ্য কার না ভালো লাগে!

নুহাশ পল্লী

গাজীপুর থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে বিখ্যাত কথাসাহিত্যিক হু'মায়ূন আহমেদ মনের রঙে গড়ে তুলেছেন নুহাশ পল্লী। অসংখ্য ওষুধি গাছ, ফলজ আর বনজ গাছে সবুজে একাকার এ জায়গাটি। এখানেই হু'মায়ূন আহমেদ গড়ে তুলেছিলেন স্যুটিং স্পট, দিঘি আর সুদৃশ্য বাংলো। আরো তৈরি করা হয়েছে রূপকথার মৎস্যকন্যা আর রাক্ষস। সবুজের বুকে লেখকের স্বপ্নে গড়া এমন সুন্দর জায়গায় প্রিয়জনের সঙ্গে খুব সুন্দর সময় কাটিয়ে আসতে পারেন।

বালিয়াটি জমিদার বাড়ি

দেশের সবচেয়ে বড় জমিদারবাড়িগুলোর একটি বালিয়াটি জমিদার বাড়ি। ঢাকা থেকে মাত্র ৩৫ কিলোমিটার দূরে সাটুরিয়া উপজে'লয় এই প্রাচীন বাড়িটি অবস্থিত। বাড়িতে এখনো বেশ জমিদারি ভাব। বাড়ির সিংহ দরজার সামনে প্রশস্ত আঙ্গিনা, চারটি বহুতল ভবন, এর পেছনে জমিদার অন্দরমহল আর বাড়ি ঘিরে কয়েকটি পুকুর। জমিদার বাড়ির ভিতরে রং মহল নামের ভবনটি এখন জাদুঘরও করা হয়েছে।

জিন্দাপার্ক, নারায়ণগঞ্জ

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ থা'নার একটি গ্রামের প্রায় ৫০ একর জায়গা নিয়ে গড়ে তোলা এ পার্ক। বিশুদ্ধ কোলাহলমুক্ত পার্কটিতে আছে ২৫০ প্রজাতির ১০ হাজারের বেশি গাছ-গাছালি, ট্রি-হাউস, টিলা, ফুলের বাগান এবং লেকের ওপর চ'মৎকার ব্রিজ। পুরো পার্কজুড়ে বিছানো কার্পেটের মত ঘাস আর পাঁচটি জলধারা।

Back to top button

You cannot copy content of this page