‘লিভটুগেদার’সহ বিবাহ ছাড়াই আরও যে কাজগুলো করার ‘অনুমতি’ দিচ্ছে আমিরাত

প্রে'মিক-প্রে'মিকাদের একসঙ্গে অবস্থানের ক্ষেত্রে আর কোনও বাধা থাকছে না সংযু'ক্ত আরব আমিরাতে (ইইউ)। এমনকি ম'দ্যপানের ক্ষেত্রেও দেশটির আইনে আনা হয়েছে শিথিলতা।

শনিবার (৭ নভেম্বর) ইস'লামি আইনে বেশকিছু শিথিলতার ঘোষণা দেয় দেশটি। এছাড়া পারিবারিক নি'র্যা'তনের ক্ষেত্রে পুরুষদের যে একচ্ছত্র ভূমিকা ছিল-তারও পরিবর্তন আনা হয়েছে। ফলে দেশটিতে নি'র্যা'তনের প্রতিবাদস্বরূপ পরিবারের পুরুষ সদস্যদের বি'রুদ্ধে মা'মলাও করতে পারবেন নারীরা।

আলজাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আইন ও বিনিয়োগ ব্যবস্থাকে আরও সহ'জলভ্য করার ওপর জো'র দিচ্ছে দেশটির সরকার। সেজন্যই ঢালাওভাবে এ আইনি সংস্কার করেছে তারা।

এদিকে আইনের এ ঢালাও সংস্কারে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন দেশটির চলচ্চিত্র নির্মাতা আবদুল্লাহ আল কাবি। বহুবছর ধরে জেন্ডার ও সমকামীদের নিয়ে কাজ করা এ চলচ্চিত্র নির্মাতা বলেন, “প্রগতিশীল ও প্ররোচক সংস্কারগুলোর কারণে এরচেয়ে বেশি খুশি হওয়া সম্ভব নয়।”

দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ডব্লিউএএম নিউজ এজেন্সি ও সংবাদপত্র দ্য ন্যাশনালের মতে, আইনি এ সংস্কারের ফলে প্রাপ্তবয়স্ক প্রে'মিক যুগলের জন্য লিভ-টুগেদারে নিষেধাজ্ঞা, অ্যালকোহল ও অ্যালকোহল জাতীয় পণ্য ঘরে রাখা কিংবা কেনা-বেচার ক্ষেত্রে লাইন্সেস বহনের মতো বিষয়গুলোতে শিথিলতা আনা হয়েছে।

এমন একসময়ে এ সংস্কারটি আনা হলো, যখন যু'ক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্ততায় ইস'রায়েলের সঙ্গে নতুনভাবে স'ম্পর্কযু'ক্ত হচ্ছে দেশটি। ধারণা করা হচ্ছে পশ্চিমা বিশ্বের বিশেষ করে ইস'রায়েলি পর্যট'ককে আকৃষ্ট এ ধরনের আইনি শিথিলতা।

Back to top button

You cannot copy content of this page