আজ পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)

আজ (শুক্রবার) ১২ রবিউল আউয়াল, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.)। প্রায় এক হাজার ৪০০ বছর আগে এই দিনে আরবের ম'রু প্রান্তরে মা আমিনার কোল আলো করে জন্ম নিয়েছিলেন বিশ্বনবী হ'জরত মুহাম্ম'দ (সা.)। আবার এই দিনে তিনি পৃথিবী ছেড়ে চলে যান।

আইয়ামে জাহেলিয়াতের অন্ধকার দূর করে তৌহিদের মহান বাণী নিয়ে এসেছিলেন এই মহামানব। প্রচার করেছেন শান্তির ধ'র্ম ইস'লাম। তাঁর আবির্ভাব এবং ইস'লামের শান্তির ললিত বাণীর প্রচার সারা বিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টি করে। তাই পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে বিশ্ববাসীসহ মু'সলিম উম্মাহর আনন্দের দিন। আবার এদিনই তিনি মা'রা যাওয়ায় একইসঙ্গে এটি মু'সলিম বিশ্বের জন্য ক'ষ্টের দিনও।

এই দিনটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধীদলীয় রওশন এরশাদ বাণী দিয়েছেন। এ উপলক্ষে রাজধানীসহ দেশের সরকারি স্থাপনাগুলো আলোকসজ্জায় সজ্জিত করা হয়েছে।

দিনটি উপলক্ষে মিলাদ মাহফিল, আলোচনা ও কোরআন খতমসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজন করবে ইস'লামিক ফাউন্ডেশনসহ বিভিন্ন ধ'র্মীয় ও সামাজিক প্রতিষ্ঠান, রাজনৈতিক দল, ম'সজিদ ও মাদরাসা। তবে সবকিছু হবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে। আর কারোনার কারণে কিছুটা সীমিত পরিসরে।

ইস'লাম ধ'র্মমতে, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ মহামানব হ'জরত মুহাম্ম'দ (সা.) নবুয়তের সিলসিলায় শেষ নবী। তিনি পৃথিবীতে এসেছিলেন তওহিদের মহান বাণী নিয়ে। সারা আরব বিশ্ব যখন পৌত্তলিকতায় বিশ্বা'স করত, তখন মহান আল্লাহ-তায়ালা তার প্রিয় হাবিব হ'জরত মুহাম্ম'দকে (সা.) রহমতস্বরূপ বিশ্বজগতে পাঠিয়েছিলেন।

সবধরনের কুসংস্কার, গোঁড়ামি, অন্যায়, অবিচার ও দাসত্বের শৃঙ্খলা ভেঙে মানবসত্তার চিরমুক্তির বার্তা বহন করে এনেছেন তিনি। নিজ যোগ্যতা, মহানুভবতা, সহনশীলতা, কঠোর পরিশ্রম, নিষ্ঠা ও সীমাহীন দুঃখ-ক'ষ্টের বিনিময়ে প্রিয় নবী জীবনাদর্শ রেখে গেছেন।

মহানবীর জন্ম'দিন উপলক্ষে আজ সরকারি ছুটির দিন। তাই দৈনিক পত্রিকা অফিসগুলোও বন্ধ থাকবে। শনিবার কোনো পত্রিকা প্রকাশিত হবে না। তবে বিশেষ ব্যবস্থায় পত্রিকা বের করা যাবে। চলবে অনলাইন নিউজ পোর্টালগুলোও।

Back to top button

You cannot copy content of this page