সহপাঠীদের সাথে ঘুরতে এসে ধ'র্ষণের শিকার দুই কলেজছা'ত্রী

বরগুনার বামনা উপজে'লার হলতা ডৌয়াতলা ওয়াজেদ আলী খান ডিগ্রি কলেজের সদ্য ভর্তি হওয়া একাদশ শ্রেণির দুই ছা'ত্রী ধ'র্ষণের শিকার হয়েছে বলে অ'ভিযোগ পাওয়া গেছে। সহপাঠীদের সাথে পার্শ্ববর্তী মঠবাড়িয়া উপজে'লায় ঘুরতে এসে ধ'র্ষণের শিকার হয় তারা। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে মঠবাড়িয়া উপজে'লার উত্তর মিঠাখালী গ্রামের মাঝেরপূল নামকস্থানে এ ঘটনা ঘটে।

মঠবাড়িয়া থা'না পু'লিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই দুই ছা'ত্রীকে উ'দ্ধার করে থা'নায় নিয়ে আসেন। আজ শুক্রবার দুপুরে এঘটনায় ধ'র্ষণের শিকার এক ছা'ত্রী মঠবাড়িয়া থা'নায় ৪ জনকে আ'সামি করে একটি ধ'র্ষণ মা'মলা দায়ের করে। মঠবাড়িয়া থা'না পু'লিশ আজ সকালে মো. আবুবক্কর সাগর নামে এক আ'সামিকে চড়খালী ফেরিঘাট থেকে আ'ট'ক করেছে।

ধ'র্ষণের শিকার ওই দুই ছা'ত্রী জানায়, বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় হলতা ডৌয়াতলা ওয়াজেদ আলী খান ডিগ্রি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির জন্য কাগজপত্র জমা দেন। জমা শেষে দুপুরে প্রতিবেশী সহপাঠী সোহাগ খান (২০) ও শাহাদাৎ (২১) নামে দুই সহপঠীকে নিয়ে ভান্ডারিয়া উপজে'লার হরিনপালা ইকো'পার্কে ঘুরতে যাওয়ার জন্য মঠবাড়িয়ায় পৌঁছে। সেখান থেকে একটি ইজিবাইকে করে তারা হরিনপালার উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। দুপুরের সময় তাদের বহনকারী ইজিবাইক উপজে'লার উত্তর মিঠাখালী গ্রামের মাঝেরপুল নামক স্থানে নষ্ট হয়। এসময় অ'ভিযু'ক্ত রানা, মা'রুফ ও সোহাগ তাদের জি'ম্মি করে। এরপর তাদের সাথে আরো কয়েকজন যোগ হয়। পরে তাদের সাথে থাকা সহপাঠী সোহাগ ও শাহাদাৎকে মা'রধর করে ওদের বেঁধে রাখে।

আ'সামিরা পরে স্থানীয় আর্শেদ মিয়ার বাড়ির সম্মুখে সরকারি পুকুর পাড়ে নিয়ে ওই দুই ছা'ত্রীকে নিয়ে মা'রধর করে মোবাইল, টাকা পয়সা ছিনিয়ে নিয়ে ভ'য়ভীতি প্রদর্শন করে। পরে তাদের দুজনকে নির্জনে নিয়ে পাশবিক নি'র্যাতন চালায়।

মঠবাড়িয়া থা'নার ভা'রপ্রাপ্ত কর্মক'র্তা (ওসি) মাসুদুজ্জামান মিলু বলেন, এ ঘটনায় মঠবাড়িয়া থা'নায় ৪ জনকে আ'সামি করে একটি মা'মলা হয়েছে। পু'লিশ ইতিমধ্যে এক আ'সামিকে গ্রে'প্তার করেছেন। বাকি আ'সামিদের গ্রে'প্তারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

Back to top button

You cannot copy content of this page