করো'নাভাই'রাস শরীরে যতদিন পর্যন্ত থাকতে পারে

করো'নাভাই'রাস কোনো কোনো রোগীর শ্বা'সতন্ত্রে পাঁচ সপ্তাহের বেশি পর্যন্ত থাকতে পারে। কিছু কিছু রোগীকে অ্যান্টিভাই'রাল ওষুধ দেয়ার পরও ভাই'রাসের জীবনকাল কমে যায়নি। সম্প্রতি দ্য ল্যানচেট মেডিকেল জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় এ তথ্য উঠে এসেছে। খবর সিবিএস নিউজের।

চীনের ১৯১ জন রোগীর মেডিকেল রেকর্ড বিশ্লেষণ করে এই গবেষণা লিখেছেন ১৯ জন ডাক্তার। এসব রোগীর মধ্যে ১৩৫ জন জিনয়িনতান হাসপাতা'লের ও বাকি ৫৬ জন উহান পালমোনারি হাসপাতা'লের ছিলেন। ১৩৭ জন সুস্থ হওয়ার রোগীর ডেমোগ্রাফিক, ক্লিনিক্যাল, ট্রিটমেন্ট ও ল্যাব ডেটা এবং হাসপাতা'লে মা'রা যাওয়া ৫৪ জন রোগীর তথ্যের ভিত্তিতে এই গবেষণাপত্র লিখেছেন তারা।

গবেষকরা দেখেছেন যে, যেসব রোগীর সিভিয়ার ডিজিজ স্ট্যাটাস ছিল তাদের শরীরে গড়ে ১৯ দিন পর্যন্ত ছিল এই ভাই'রাস। আর ক্রিটিক্যাল ডিজিজ স্ট্যাটাস রোগীর শরীরে গড়ে ২৪ দিন উপস্থিত ছিল এই ভাই'রাস। তবে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়া ব্যক্তিদের শরীরে গড়ে ২০ দিন পর্যন্ত ছিল করো'নাভাই'রাস। এছাড়া করো'নায় আ'ক্রান্ত হয়ে মা'রা যাওয়া ব্যক্তির শ্বা'সতন্ত্রে মৃ'ত্যুর আগ পর্যন্ত এই ভাই'রাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

বেঁচে যাওয়া ব্যক্তির শ্বা'সতন্ত্রে করো'নাভাই'রাস সর্বনিম্ন ৮ দিন পর্যন্ত বেঁচে ছিল। তবে সবচেয়ে আতঙ্কের বিষয় হচ্ছে, কারও কারও শরীরে এটি ৩৭ দিন পর্যন্ত বেঁচে ছিল।

ওই গবেষণার লেখকরা লিখেছেন, এর মাধ্যমে রোগী আইসোলেশনের সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে এবং অ্যান্টিভাই'রাল দিয়ে কতদিন পর্যন্ত চিকিৎসা চালাতে হবে তা জানার ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

জুমবাংলানিউজ/এসআর

Back to top button

You cannot copy content of this page