হার্টে দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব ফেলে করো'নাভাই'রাস

করো'নাভাই'রাস হার্টে দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব ফেলতে পারে। নতুন গবেষণায় উঠে এসেছে এই তথ্য। জেএএমএ কার্ডিওলজি মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত জার্মানির বিজ্ঞানীদের গবেষণায় বলা হয়েছে, কোভিড-১৯ রোগ থেকে সুস্থ হওয়া রোগীদের কয়েক মাস পরও হার্টে অস্বাভাবিকতা দেখা গেছে।

ইউনিভা'র্সিটি অব হসপিটাল ফ্রাঙ্কফুটের বিজ্ঞানীরা ৪০ থেকে ৬০ বছর বয়সী ১০০ জন করো'না আ'ক্রান্ত রোগীর ওপর এই গবেষণা পরিচালনা করেছেন। এর মধ্যে এক তৃতীয়াংশ রোগী হাসপাতা'লে ভর্তি ছিলেন এবং বাকিরা বাসায় আইসোলেশনে ছিলেন।

করো'না থেকে সুস্থ হওয়ার আড়াই মাস পর এই ১০০ জন রোগীর এমআরআই পরীক্ষার ফলাফল, করো'নায় কখনো আ'ক্রান্ত হননি এমন ব্যক্তিদের এমআরআই পরীক্ষার ফলাফলের সঙ্গে তুলনা করা হয়। গবেষণায় দেখা যায়, সুস্থ হওয়া ১০০ জন রোগীদের মধ্যে ৭৮ জনের হার্টে অস্বাভাবিকতা রয়েছে ভাই'রাসটির দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব হিসেবে। এই ৭৮ জনের মধ্যে ৬০ জনের হার্টের পেশীতে প্রদাহ পাওয়া যায়।

জেএএমএ কার্ডিওলজি মেডিক্যাল জার্নালের সম্পাদক ডা. ক্লাইড ইয়েন্সি বলেন, ‘বিষয়টি দেখার পর আম'রা হতবাক হয়েছি।’

হার্টের অস্বাভাবিকতা সাধারণত ইকো পরীক্ষার ধ'রা পড়ে। তবে ইকো পরীক্ষায় রোগীদের হার্টে এই অস্বাভাবিকতার বিষয়টি ধ'রা পড়েনি। এমআরআই পরীক্ষার এই গবেষণার ফলাফল ব্যতীত বিষয়টি জানা অসম্ভব ছিল বলে জানান গবেষকরা।

আ'মেরিকান কার্ডিওলজি কলেজের সায়েন্স অ্যান্ড কোয়ালিটি কমিটির চেয়ারম্যান ডা. থমাস ম্যাডক্স বলেন, করো'নাভাই'রাস হার্টে উচ্চ প্রদাহ'জনক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে ইতিমধ্যে একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে। হার্টের প্রদাহ হৃৎপিণ্ডের পেশী দুর্বল করতে পারে এবং বিরল ক্ষেত্রে অস্বাভাবিক হার্ট বিট হতে পারে। হার্ট ড্যামেজ হওয়ার মূল কারণ হিসেবে পরিচিত প্রদাহ।’

ডা. ইয়েন্সি বলেন, ‘কোভিড-১৯ থেকে সুস্থ হওয়ার কয়েক মাস পরও ভাই'রাসটির প্রভাবে হার্টের ক্ষতির ঝুঁ'কি এই গবেষণায় উঠে এসেছে। তবে হার্টের ওপর করো'নাভাই'রাসে দীর্ঘমেয়াদি প্রভাব নিশ্চিত হতে আরো গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।’

জুমবাংলানিউজ/এসআর

Back to top button

You cannot copy content of this page