গোসলের পানিতে নিমপাতা মেশানোর উপকারিতা

নিম পাতা প্রায় সবার কাছে পরিচিত। বিশেষ করে গ্রাম-বাংলায় নিম গাছ বেশি দেখা যায়। ভেষজ চিকিৎসায় নিম পাতার ব্যবহার বহুল। যদি বাড়িতে একটি নিমগাছ থাকে একজন ডাক্তারের চেয়ে সেটি বেশী কাজ করে। নিম (বৈজ্ঞানিক নাম:AZADIRACHTA INDICA) ঔষধি গাছ যার ডাল, পাতা, রস, ফুল, ফল, তেল, বাকল, শিকড় সবই কাজে লাগে। নিম একটি বহু বর্ষজীবি ও চির হরিত বৃক্ষ। আকৃতিতে ৪০-৫০ ফুট পর্যন্ত লম্বা হয়। এর কা'ন্ড ২০-৩০ ইঞ্চি ব্যাস হতে পারে। ডালের চারদিকে ১০-১২ ইঞ্চি যৌগিক পত্র জন্মে। পাতা কাস্তের মত বাকানো থাকে এবং পাতায় ১০-১৭ টি করে কিনারা খাঁজকা'টা পত্রক থাকে। পাতা ২.৫-৪ ইঞ্চি লম্বা হয়। ঋতু বদলের এই সময়ে এমনিতেই অ'সুখ-বিসুখ দেখা দিতে পারে, সেইসঙ্গে রয়েছে করো'না সংক্রমণের ভ'য়। গ্রীষ্মকাল শেষে বর্ষা শুরুর এই সময়ে সর্দি, জ্বর, কাশি, নানারকম অ্যালার্জি সাধারণ অ'সুখ। প্রতিবছর এই সময়ে এমনটা স্বাভাবিক হলেও করো'নাভাই'রাসের কারণে এখন এসবই ভ'য়ের কারণ। তবে সর্দি, জ্বর কিংবা কাশি হলেই আতঙ্কিত হবেন না। বরং মেনে চলতে হবে সাবধানতা।

এই সময়ে যথাসম্ভব সুস্থ থাকা জরুরি। ঋতু পরিবর্তনের এই সময়ে আপনাকে সুস্থ থাকতে সাহায্য করতে পারে নিমপাতা। বহুকাল ধরে শরীর সুস্থ রাখতে অ'পরিহার্য ভূমিকা পালন করেছে এই নিমপাতা। চলুন জেনে নেওয়া যাক গোসলের সময় নিমপাতা ব্যবহার করা কেন জরুরি- ঋতুবদলের সময় নিমপাতা মেশানো পানিতে গোসল করা বহু বছরের পুরোনো দাওয়াই। ত্বকের সমস্যা, চুলের সমস্যা, অ্যালার্জির প্রকোপ রুখতে নিমের জবাব নেই। সেই সঙ্গে সর্দি, কাশি, জ্বর প্রতিরোধী ভূমিকা তো আছেই। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, জ্বরজারি, ঠান্ডা লাগা সারায়। করো'নাভাই'রাসের সংক্রমণ রুখতে সবচেয়ে জরুরি হলো রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো। কিন্তু ভীষণ তেতো হওয়ায় অনেকে নিমপাতার রস খেতে পারেন না, তাই নিয়মিত নিমপাতা দেয়া পানিতে গোসল করা উচিত। বিশেষ করে এই গ্রীষ্ম থেকে বর্ষার সময়টাই নিমপাতা অ'পরিহার্য।

গরম পানিতে মিনিট পাঁচেক নিমপাতা ফেলে সেই পানি ঠান্ডা করে গোসল করা যেতে পারে। এতে ত্বক ও চুলের প্রভূত উপকার হবে। নিমপাতা অ্যান্টি ব্যাকট্রিয়াল, অ্যান্টি ফাঙ্গাল। খুশকি রুখতেও বিরাট ভূমিকা নেয় এটি। গরমকালে শরীরে যে রেশ বের হয়, তা দূর করতেও নিমপাতা কার্যকর। পিম্পল, ব্ল্যাকহেডসের সমস্যা সমাধানে নিমপাতার জবাব নেই। বেশি আর্দ্র আবহাওয়ায় থাকেন যারা, তাদের প্রাত্যহিক জীবনে নিমপাতা ব্যবহার করা উচিত। চোখের অ্যালার্জি সারাতেও কার্যকরী নিমপাতা।

Back to top button

You cannot copy content of this page