পরিক'ল্পিত হ'ত্যা, প্রমাণ মিললে ছাড় দেওয়া হবে না: নৌ প্রতিমন্ত্রী

ঢাকার পোস্তগো'লা সংলগ্ন বুড়িগঙ্গা নদীতে গতকাল সোমবার (২৯ জুন) সকালে লঞ্চডুবির পর এখন পর্যন্ত ৩২ জনের ম'রদেহ উ'দ্ধার করা হয়েছে। এদের মধ্যে ২১ জন পুরুষ, আটজন নারী এবং তিনজন শি'শু। নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ‘সিসিটিভির ফুটেজ দেখে মনে হচ্ছে এটি পরিক'ল্পিত হ'ত্যাকা'ণ্ড। এটা যদি পরিক'ল্পিত হয় এবং সেটা যদি প্রমাণিত হয় তাহলে তাদের বি'রুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ছাড় দেওয়া হবে না।’ সোমবার সকালে দুর্ঘ'টনা কবলিত এলাকা পরিদর্শনে এসে এসব কথা বলেন তিনি।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘এটি অ'ত্যন্ত বেদনাদায়ক, দুঃখজনক ঘটনা। দুর্ঘ'টনার কারণ অনুসন্ধানে মন্ত্রণালয় থেকে একজন যুগ্ম সচিবের নেতৃত্বে ৫ সদস্যের ত'দন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৭ দিনের মধ্যে কমিটিকে ত'দন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আম'রা নি'হতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাই। পরিবারগুলোর পাশে বিআইডব্লিউটিএ থাকবে। তাৎক্ষণিকভাবে দাফনের জন্য ১০ হাজার করে দেওয়া হচ্ছে এবং পরবর্তীতে পরিবারগুলোকে দেড়লাখ টাকা করে সহায়তা দেওয়া হবে।’

দুর্ঘ'টনার ত'দন্ত আলোর মুখ দেখে না—সাংবাদিকদের এমন অ'ভিযোগের বিষয় তিনি বলেন, ‘ত'দন্ত হয় কিন্তু সাংবাদিকরা ফলো করেন না। অ'তীতে অনেক ত'দন্ত হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘ঘটনা দেখলে মনে হয় এটা পরিক'ল্পিত। ইতোমধ্যে ত'দন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। ৭ দিনের মধ্যে ত'দন্ত রিপোর্ট জমা দেবে। ইতোমধ্যে চালককে গ্রে'ফতার করেছে নৌ-পু'লিশ। আম'রা সঠিক ঘটনা অনুসন্ধান করে দায়ী ব্যক্তিদের বি'রুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।’ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘লঞ্চটি স্বাস্থ্যবিধি মেনেই যাত্রী নিয়েছিল। স্বাস্থ্যবিধি মানার পরও তাদের সলিল সমাধি হলো। লঞ্চে নিরাপত্তা সরঞ্জাম ছিল কিনা তা আম'রা ত'দন্ত করে দেখবো। সেখানে কেউ দায়ী হলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Back to top button

You cannot copy content of this page