ট্রা'ম্পের বি'রুদ্ধে গ্রে'ফতারি পরোয়ানা জারি

মা'র্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রা'ম্পের বি'রুদ্ধে গ্রে'ফতারি পরোয়ানা জারি করেছে ই'রান। বাগদাদে ই'রানি জেনারেল কাশেম সোলাই'মানিকে হ'ত্যায় জ'ড়িত উল্লেখ করে ট্রা'ম্পসহ আরও কয়েকজনকে আ'ট'কের জন্য ইন্টারপোলের সহযোগিতা চেয়েছে তেহরান।

এ তথ্য জানিয়েছে কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আলজাজিরা। প্রতিবেদনে বলা হয়, গেলো জানুয়ারিতে জেনারেল কাসেম সোলাই'মানিকে যে ড্রোন হা'মলায় হ'ত্যা করা হয়েছে সেই হা'মলায় জ'ড়িত ছিলো ট্রা'ম্পসহ কমপক্ষে ৩০ জন।

এর ফলে, তেহরানের পক্ষ থেকে অ'ভিযু'ক্তদের বি'রুদ্ধে ‘রেড নোটিশ’ জারির অনুরোধ করা হয়েছে। যা ইন্টারপোলের গ্রে'ফতার করার জন্য সর্বোচ্চ অনুরোধ। এতে স'ন্দেহভাজনকে তাৎক্ষণিক গ্রে'ফতার না করতে পারলেও ভ্রমণ সীমিত করতে পারে।

এর আগে, ২০২০ সালের ৩ জানুয়ারি ই'রাকের বাগদাদে মা'র্কিন যু'ক্তরাষ্ট্রের একটি টার্গেট করা বিমান হা'মলায় নি'হত হন জেনারেল কাশেম সোলেই'মানি। তার সাথে ফোর্সের আরও কিছু সাম'রিক সদস্য নি'হত হয়।

সোলাই'মানিকে নৃ'শংসভাবে হ'ত্যার পরদিনই একটি ভিডিও প্রকাশ করে যু'ক্তরাজ্যভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান ও রাশিয়ার সংবাদমাধ্যম রাশিয়া টুডে। যেটি সাথে সাথেই ভাই'রাল হয়ে পড়ে ও ট্রা'ম্পের বি'রুদ্ধে সমালোচনার সৃষ্টি করে।

এরপরই এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউস জানায়, ই'রাকের বাগদাদ বিমানবন্দরে মা'র্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রা'ম্পের নির্দেশে রকেট হা'মলা চালিয়ে ই'রানের আল-কুদস ফোর্সের প্রধান ও বিপ্লবী গার্ডস বাহিনীর কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলাই'মানি ও ই'রানের মিলিশিয়া নেতা আবু মাহদি আল মুহানদিসকে হ'ত্যা করা হয়।

এর ঠিক এক সপ্তাহ আগে বাগদাদে মা'র্কিন দূতাবাস চত্বরে হাজার হাজার ই'রাকির হা'মলা চালানোর পর এ বিষয়ে ই'রানকে দায়ী করে ওয়াশিংটন। এই নিয়ে দুই দেশের মধ্যে তীব্র উত্তে'জনার মধ্যে এই হা'মলা চালানো হয়।

Back to top button

You cannot copy content of this page